trump

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর বুধবার প্রথমবারের মতো বুধবার নিউইয়র্কে ট্রাম্প টাওয়ারে সংবাদ সম্মেলন করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। নিজের ব্যবসা সম্পর্কে ট্রাম্প জানান, তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুরোপুরি দেখাশোনা করবেন তার দুই ছেলে। তিনি প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর ব্যবসায়িক কার্যক্রম কিভাবে চলবে তা জানানোর জন্য ওই সংবাদ সম্মেলন ডাকা হলেও এর বেশির ভাগ অংশজুড়েই ছিল রাশিয়ার সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়টি।

ট্রাম্পের ব্যবসা সংক্রান্ত কিছু গোপন তথ্য ও তার ব্যক্তিগত জীবনের কিছু বিব্রতকর ভিডিও মস্কোর হাতে রয়েছে- এমন একটি খবরেই মার্কিন মিডিয়া সয়লাব হয়ে গেছে। কোনো রকম যাচাই বাছাই ছাড়াই নিজের ব্যক্তিগত জীবনের তথ্য গণমাধ্যমে প্রকাশ করার জন্য মার্কিন গোয়েন্দাদের ওপরে চড়াও হয়েছেন ট্রাম্প।

এসব ভূয়া খবর ছাপার জন্য সংবাদমাধ্যমেরও সমালোচনা করেন ট্রাম্প। সম্প্রতি সিএনএনসহ বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টের সমালোচনা করে বলেন, এসব কাজ জার্মানির নাৎসিরা করতো। সংবাদমাধ্যম ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর প্রতি নিন্দা জানালেও প্রথমবারের মতো মার্কিন প্রেসিডেন্ট নিবার্চনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের কথা স্বীকার করেছেন ট্রাম্প। তবে এর পাশাপাশি প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক জোরদার করার প্রক্রিয়াটিও অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এদিকে, ট্রাম্প বলেন, ‘হ্যাকিংয়ের পেছনে রাশিয়ার হাত থাকতে পারে। তবে, শুধু রাশিয়া নয়, আমরা আরো অনেক দেশ ও ব্যক্তির মাধ্যমেই হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছি। পুতিন যদি আমাকে পছন্দ করেন, তবে আমি মনে করি এটি আমার সম্পদ।’

এছাড়া, রাশিয়ার সঙ্গে আর্থিক লেনদেনের বিষয়ে ট্রাম্প গোপনীতা রক্ষা করছে, হোয়াইট হাউজের এমন অভিযোগও উড়িয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প।

এজেড/

কোন মন্তব্য নেই

মতামত দিন