ফারুকীর ‘ডুব’ নিষিদ্ধ

পূর্বপশ্চিম ডেস্ক।।

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ডুব চলচ্চিত্রটি নিষিদ্ধ করেছে বাংলাদেশ ফিল্ম সেন্সর বোর্ড। এমনই খবর দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অনলাইন পত্রিকা ভ্যারাইটি। ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনার ছবিটিতে অভিনয় করেছেন বলিউডের শক্তিমান অভিনেতা  ইরফান খান ও বাংলাদেশের নুসরাত ইমরোজ তিশা।

ছবিটি কেন নিষিদ্ধ করা হলো এ বিষয়ে বিএফডিসির ম্যানেজিং ডিরেক্টর তপন কুমার ঘোষ বলেন, এটা বিএফডিসির বিষয় নয়। বাংলাদেশ ফিল্ম সেন্সর বোর্ড বিষয়টি তত্বাবধান করে।

এ বিষয়ে ফারুকী ভ্যারাইটিকে বলেন, প্রথম পদক্ষেপেই ছবিটি আটকে দেওয়া হয়েছে। তবে ঠিক কি কারণে সেটা করা হয়েছে তার ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি। এটা সত্য আমার ছবির বিষয় তথকথিত  ‘ট্যাবু’ভিত্তিক হয়ে থাকে। তবে তাতে কোনো ধরনের সেন্সর কোড ভঙ্গ করা হয়নি। এটা আসলে বাকস্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ।

এ বিষয়ে ইরফান খান বলেন, ছবিটি নিষিদ্ধ করায় আমি সত্যি বিস্মিত। ছবিটি মূলত একজন নারী ও পুরুষের জটিল সম্পর্ক ও একটি মানবিক বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত। এতে সমাজের কি ক্ষতি হতে পারে?

গত বছর ১৭ মার্চ ‘ডুব’  ছবির শুটিংয়ে অংশ নিতে  ইরফান খান ঢাকায় আসেন। ‘ডুব’ ছবির ইংরেজি নাম ‘নো বেড অব রোজেস’। সিনেমাটি বাংলাদেশে জাজ মাল্টিমিডিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে প্রযোজনা করেছে ভারতের এসকে মুভিজ ও ইরফান খানের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ।

ফারুকী প্রয়াত খ্যাতিমান কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে ‘ডুব’ ছবি নির্মাণ করেছেন বলে খবর রটে। এতে হুমায়ূন আহমেদের চরিত্রে  ‘ডুব’ ছবিতে অভিনয় করেছেন বলিউড অভিনেতা ইরফান খান। এমনটাই নিশ্চিত করেছিল পশ্চিমবঙ্গের প্রভাবশালী পত্রিকা আনন্দবাজার।  এই খবরে বাংলাদেশে ছবিটি ঘিরে শুরু হয় তুমুল বিতর্ক।

সম্প্রতি সেন্সর বোর্ডে ‘ডুব’ ছবিটির ব্যাপারে আপত্তি জানিয়ে চিঠি দেন হুমায়ূনপত্নী নির্মাতা,অভিনেত্রী মেহের আফরোজ শাওন। তবে  নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী  জানিয়েছিলেন, আমরা কোনো বায়োপিক বানাচ্ছি না। এই ছবির প্রতিটি চরিত্র কাল্পনিক।’

/এমএমআর/

কোন মন্তব্য নেই

মতামত দিন