শ্রমিকদের বরাদ্দকৃত ৮ লাখ কোটি টাকা চলে যাচ্ছে অন্যের হাতে

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি।।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) কেন্দ্রীয় সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম সরকারের সমালোচনা করে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ও শিল্পমন্ত্রী দেশের মাথাপিছু গড় আয় ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা ঘোষণা করলেও শ্রমিকের ভাগ্যে তা মিলছে না।শ্রমিকরা পাচ্ছে মাত্র ৭০ থেকে ৭৫ হাজার টাকা।

তিনি বলেন, দেশের সমস্ত শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ অবশিষ্ট ৮ লাখ কোটি টাকা চলে যাচ্ছে অন্যের হাতে। দেশে বৈষম্য বেড়ে গেছে। একটি বিশেষ শ্রেণির মানুষ অবৈধভাবে ধনী হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু শ্রমিকের ভাগ্যের কোন পরিবর্তন হয়নি।

শুক্রবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অনুষ্ঠিত গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের জেলা কমিটির ৪র্থ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

সংগঠনের জেলা সভাপতি এম এ শাহীনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরো বক্তব্য দেন- গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় সভাপতি এডভোকেট মন্টু ঘোষ, কার্যকরী সভাপতি সাদেকুর রহমান শামীম, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নাঃগঞ্জ জেলা কমিটির সিনিয়র নেতা দুলাল সাহা, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নাঃগঞ্জ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদসহ অন্যান্য আঞ্চলিক নের্তৃবৃন্দ।

সম্মেলনে শ্রমিক নের্তৃবৃন্দ বলেন, সরকার পে-স্কেল ঘোষণা করে সরকারি প্রতিষ্ঠানের শ্রমিক-কর্মচারী-কর্মকর্তাদের বেতন বৃদ্ধি করায় রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রী, এমপিদের বেতন দ্বিগুন করা হয়েছে। কিন্তু সরকার শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধি বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়ার প্রয়োজন মনে করছে না। মালিকরাও মজুরি বৃদ্ধি ও ন্যায্য মজুরি দিতে টালবাহানা করছে।

বক্তারা সরকারের কাছে শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা, রেশনিং, বাসস্থান ও নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করা, আশুলিয়ায় গ্রেফতারকৃত শ্রমিকদের মুক্তি ও অন্যায়ভাবে ছাঁটাইকৃত শ্রমিকদের পূনর্বহালসহ ১০ দফা দাবি জানান।

জেআই/

কোন মন্তব্য নেই

মতামত দিন